দায়বদ্ধতা এবং দায়িত্বের মধ্যে পার্থক্য

দায়বদ্ধতা বনাম দায়ীত্ব

জবাবদিহিতা এবং দায়বদ্ধতা দুইটি শব্দ যা তাদের অর্থের মধ্যে সাদৃশ্যের কারণে প্রায়শই বিভ্রান্ত হয়। স্পষ্টত কথা বলার, এই দুটি শব্দকে ভিন্নভাবে বোঝা দরকার। 'জবাবদিহিতা' শব্দটি সাধারণত 'উত্তরযোগ্যতার' অর্থে ব্যবহার করা হয়। অন্যদিকে, 'দায়িত্ব' শব্দটির 'দায়বদ্ধতার' বা 'নির্ভরযোগ্যতা' শব্দটি ব্যবহার করা হয়। এই দুটি শব্দ মধ্যে মৌলিক পার্থক্য।

গুরুত্বপূর্ণ কর্মের জন্য একজন কর্মচারীকে জবাবদিহি করতে হয় যাতে সে সম্পূর্ণ প্রদান করে। তিনি পণ্য বিতরণ না যখন তিনি উত্তরদায়ক হয়ে ওঠে। তাকে বলা হবে এবং জিজ্ঞাসা করা হবে। একটি প্রতিষ্ঠানের প্রত্যেক কর্মী তার সাথে দায়বদ্ধতা বহন করে। অন্যদিকে, কোম্পানির বা সংস্থার বৃদ্ধিতে অবদান রাখার জন্য এটি প্রতিটি কর্মচারীর দায়িত্ব বা দায়বদ্ধতা।

একই ভাবে, দেশের প্রতিটি প্রান্তে প্রতিটি নাগরিকের একত্রে বা অন্যের অবদানকে দায়িত্ব দেওয়া হয়। একটি বাবার দায়িত্ব তার সন্তানদের নিয়ে আসা। ছেলেটির পিতামাতাদের যত্ন নেওয়ার দায়িত্ব ছেলেটির। নিয়োগকর্তা কর্মচারীদের সুবিধা প্রদানের দায়িত্ব পালন করা উচিত।

দায়বদ্ধতার দায় দায়িত্ব। স্কুলে শিক্ষার্থীদের খারাপ পারফরম্যান্সের জন্য একজন শিক্ষককে দায়ী করা হয়। তাঁর ছাত্রদের কম নম্বর সুরক্ষিত কেন তিনি উত্তর দিতে হবে। এই ধরনের জবাবদিহিতা শিক্ষকের মনকে দায়িত্বের মধ্যে নিয়ে আসে। তিনি যদি নিজেকে দায়বদ্ধতা না দেখেন, তাহলে তিনি স্কুল পরিচালনার দ্বারা জিজ্ঞাসাবাদের জন্য নিজেকে দায়ী বলে মনে করেন।

দায়িত্বহীনতা অকার্যকর এবং পরাজয়ের পথ প্রশস্ত করে। যদি একজন ক্রিকেটার একটি দায়িত্বহীন শট খেলেন এবং আউট হয়, তাহলে তিনি বিরোধী দলের হাতে দলের পরাজয়ের জন্য দায়বদ্ধ হতে পারে। এই দুটি শব্দ মধ্যে গুরুত্বপূর্ণ পার্থক্য, যেমন, জবাবদিহিতা এবং দায়িত্ব।